বিয়ের পরপরই স্বামী বিদেশে চলে যায়। এর ক’দিন পরই প্রতিবেশী যুবক দেলোয়ারের (২৭) সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন সুইটি (২০) নামের এক গৃহবধূ। এর পর থেকে মাঝে মধ্যেই সুইটির ঘরে যাতায়াত করতো ওই যুবক। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার রাতেও সুইটির ঘরে আসেন প্রেমিক।

এদিকে, তাদের মধ্যে পরকীয়ার সম্পর্ক আছে এ বিষয়টি আশপাশের লোকজন আগেই টের পেয়েছিল। তারা অপেক্ষায় ছিল দু’জনকে একসঙ্গে ধরার।

অবশেষে গতকাল সোমবার রাতে প্রেমিক দেলোয়ার গৃহবধূ সুইটির ঘরে প্রবেশ করলে আশপাশের লোকজন টের পেয়ে যায়। পরে বাইরে থেকে ঘরের দরজায় তালা লাগিয়ে দেয়া হয়।

তালা লাগিয়ে দেয়ার বিষয়টি ভেতরে থাকা সুইটি ও দেলোয়ার টের পেয়ে লোকলজ্জায় দু’জনই গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

এমনই ঘটনা ঘটেছে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের কসবা হাজিনগর গ্রামে সোমবার মধ্যরাতে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

গৃহবধূ সুইটি (২০) বেগম হাজিনগর গ্রামের সৌদি প্রবাসী নজরুল ইসলামের স্ত্রী। আর পরকীয়া প্রেমিক দেলোয়ার হোসেন (২৭) একই গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, স্বামী বিদেশ থাকায় সুইটির সঙ্গে দেলোয়ারের কয়েক বছর ধরে পরকীয়া প্রেমের সর্ম্পক ছিল। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে দেলোয়ার গৃহবধূ সুইটির ঘরে প্রবেশ করেন।

বিষয়টি স্থানীয়রা টের পেয়ে তাদের ঘরে বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দেয়। এসময় লোকলজ্জার ভয়ে দু’জনই ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পরে খবর পেয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানা পুলিশ ভোরের দিকে তাদের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। নিহতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

print