নিউজ ডেক্স : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব মুসলমানদের ঐক্যবদ্ধভাবে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন । তিনি বলেন, ইসলাম শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম, ইসলাম আমাদের সহনশীলতা শেখায়। আমাদের ইসলামের আসল থিম সর্ম্পকে জানতে হবে। সন্ত্রাসী সন্ত্রাসীই, সেখানে ধর্ম নেই। ইসলামী সম্মেলন সংস্থার (ওআইসি) সেক্রেটারী জেনারেল আইয়াদ আমীন মাদানীর সঙ্গে বৈঠককালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। রবিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন সফররত ওআইসি সেক্রেটারি জেনারেল আইয়াদ আমীন মাদানী। এ সময় তাদের মধ্যে মুসলিম উম্মাহর বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা হয়। প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি সৌদি আরবে আত্মঘাতী বোমা হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেন, ইসলামে এই সন্ত্রাসের কোন স্থান নেই। আলোচনার মাধ্যমে মুসলিম দেশগুলোর মধ্যকার সমস্যা সমাধানের ওপর গুরুত্ব দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে মুসলিম দেশগুলোর অনেকে নিজেদের মধ্যে সংঘাতে লিপ্ত। যার মাধ্যমে আমরা অন্যদের সুবিধা নেওয়ার সুযোগ করে দিচ্ছি। মুসলিম দেশগুলোর নিজেদের মধ্যকার সংঘাত আলোচনার মাধ্যমে সমাধান হতে পারে। মুসলমানদের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার ওপর গুরুত্ব দিয়ে প্রধানমন্ত্রী মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষার প্রসারে ওআইসিকে কার্যকর ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান। মুসলিমরাই এক সময় জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চায় পথ প্রর্দশক ছিলো বলেও এ সময় উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। ওআইসি সেক্রেটারি জেনারেল বাংলাদেশের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশ সব সময় ওআইসির অগ্রভাগে রয়েছে। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ওআইসির আগামী সম্মেলনে যোগদানের জন্য আমন্ত্রণ জানান। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ বিষয়ে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। সাক্ষাৎকালে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী  এ এইচ মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

print