আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে চাঁদের মাঝে কিছু আকস্মিক পরিবর্তন দেখা যাবে। সকলকে সতর্ক করার জন্য আগেই এই বার্তা প্রদান করা হচ্ছে। পৃথিবী যে তার শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে হয়ত লাল চাঁদ তারই একটি লক্ষণ।

সেপ্টেম্বরের ২৮ তারিখের প্রথম ক্ষণিকে অর্থাৎ রবিবার রাতে বা সোমবার সকালে সবচেয়ে অন্ধকার বা সবচেয়ে আলোকিত চাঁদ দেখা যেতে পারে। তবে তা অনেক সময়ের জন্য দেখা যাবে না, কিছু মিনিটের জন্য দেখা যেতে পারে।

এই চাঁদকে “সুপার মুন” বা বড় চাঁদ এবং “ব্লাড মুন” বা লাল চাঁদ বলা হয়। রাত ২ টার দিকে স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক কাছে চলে আসবে এই চাঁদ। এ সময় চাঁদ অনেক বেশী উজ্জ্বল ও আলোকিত থাকবে।

কিন্তু, ৩ টার দিকে চাঁদের রং সাদা থেকে কপার রং ধারণ করবে। কারণ তখন চাঁদ ও সূর্যের মাঝে পৃথিবী থাকবে। তখন চন্দ্রগ্রহণ হবে। এরপর চাঁদকে আবার সম্পূর্ণ দেখার জন্য রাত ৪টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।খ্রিস্টান মন্ত্রী হাগি ও মার্ক ব্লিটজ সতর্ক করেছেন যে, গত বছর এপ্রিলের শেষ থেকে এ পর্যন্ত ছয়টি পূর্ণ চাঁদ দেখা দিয়েছে। এই লক্ষণ পৃথিবীর যে শেষ পর্যায় চলে এসেছে তা বুঝাতে পারে।

তারা মনে করেন পৃথিবী এর শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে। বিভিন্ন ধরণের বইয়ে এ নিয়ে সতর্কতা সংকেত রয়েছে। জোয়েল এর বইতে বলা আছে, পৃথিবী ধ্বংস হবার পূর্বে সূর্য আস্তে আস্তে অন্ধকার হয়ে যাবে এবং চাঁদ লাল রঙ্গে পরিবর্তন হবে। তাই, অবশ্যই এখন থেকে সতর্ক হতে হবে।

print