এসএম মুন্না, নাজিরপুর : ‘গাইবে এবার তুমিও’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে নাজিরপুরে পি এস পি এল সেরা কণ্ঠ-২০১৫  উপজেলা পর্যায়ের বাছাই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পিরোজপুর শেরে বাংলা পাবলিক লাইব্রেরী জেলার বিভিন্ন উপজেলার তৃণমুল থেকে সেরাকণ্ঠ বাছাই করে জেলায় এই প্রথম সংগীতের উপর প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে। উপজেলা পর্যায়ের সিলেকশন রাউন্ড প্রতিযোগিতায় এ উপজেলার ১৩ থেকে ৩০ বছর বয়সী ৪৮ জন সংগীত শিল্পী অংশগ্রহণ করেন। শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: তবিবুর রহমান পিএসপিএল সেরা কণ্ঠ প্রতিযোগিতার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি ও উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সহযোগীতায় উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরী মিলনায়তনে দিনব্যাপী এ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠানে ৪৮ জন প্রতিযোগি অংশ নেয়।এর মধ্য থেকে বিচারক মন্ডলীর রায়ে জেলা পর্যায়ে অংশগ্রহণের জন্য ৫ জন ইয়েসকার্ড পায় এবং দুই জন অপেক্ষমান তালিকায় থাকেন। ইয়েসকার্ড প্রাপ্তরা হলেন সুমাইয়া আফরিণ, সুস্মিতা মন্ডল, সাগর গাইন, সুমা বেপারী ও গৌতম বেপারী। অপেক্ষমান তালিকায় রয়েছে প্রিয়াংকা হালদার ও শ্রাবণী বিশ্বাস। শেরে বাংলা পাবলিক লাইব্রেরীর আয়োজক কমিটির পক্ষে উপস্থিত থেকে সম্পুর্ণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন, সাদেক আহমেদ শাহাদাৎ ও সদস্য শাহাদাৎ হোসেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পিরোজপুর শেরেবাংলা পাবলিক লাইব্রেরীর সাধারণ সম্পাদক মো. গোলাম মাওলা নকীব, পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি একে আজাদ,  ‘টু’জে টেকনোলজির জুবায়ের জনি, নাজিরপুর শিল্পকলা একাডেমীর পরিচালক শেখ রুহুল আমিন, সাংবাদিক ফিরোজ মাহমুদ, পিএসপিএল নাজিরপুর উপজেলা আয়োজক কমিটির সদস্য নিহার রঞ্জন মজুমদার, তপন হালদার, শ্যামল মন্ডল ও অঞ্জন রায়। বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী ক্ষমা দাস গুপ্তা, পিরোজপুর শিল্পকলা একাডেমির সংগীত শিক্ষক সঞ্জয় কুমার মিত্র ও সঙ্গীত শিল্পী তানজিন আফরিন জিসা। প্রতিযোগিতায় পৃষ্ঠপোষকতা করছেন, দৈনিক গ্রামের সমাজের সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব মসিউর রহমান মহারাজ। সহযোগিতা করছেন জেলা শিল্পকলা একাডেমী পিরোজপুর।

print