যশোর : নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলার অন্যতম আসামি নূর হোসেনকে বৃহস্পতিবার রাতেই দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

উলফা নেতা অনুপ চেটিয়াকে ভারতের কাছে হস্তান্তরের একদিন পরই ফেরত আনা হচ্ছে নূর হোসেনকে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে পশ্চিমবঙ্গের দমদম কারাগার থেকে তাকে নিয়ে পুলিশ পেট্রাপোল বন্দরের দিকে রওনা হয়েছে। বেনাপোল বন্দরে বিএসএফ ও বিজিবির মাধ্যমে তাকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

সূত্রে জানা গেছে, নূর হোসেনকে হস্তান্তরের বিষয়ে রাত ৯টায় জানাবে বিএসএফ। তারপরেও জানা যাবে তাকে আজ হস্তান্তর করা হবে নাকি কাল হস্তান্তর করা হবে।

উলফা নেতা অনুপ চেটিয়াকে যে প্রক্রিয়ায় হস্তান্তর করা হয়েছে ঠিক একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করেই নূর হোসেনকে বাংলাদেশের কাছে তুলে দেয়া হবে বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে বিবিজি  মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ বাংলামেইলকে বলেন, ‘রাত ৯টার দিকে বিজিবি আমাদের জানাবে। তখন আমরা বুঝতে পারবো নূর হোসেনকে আজ নাকি কাল হস্তান্তর করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘প্রথমে ভারতীয় পুলিশ তাকে বিএসএফ’র কাছে তুলে দেবে। বিএসএফ তাকে নিয়ে জিরো পয়েন্টে আসবে। সেখানে আসার পরে বিএসএফ তাকে বিজিবির হাতে তুলে দেবে। বাংলাদেশ সীমান্তে আসার পরে বিজিবি র‌্যাব বা পুলিশের কাছে তাকে তুলে দেবে।’

তবে কলকাতার একটি সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার রাত ১১টা থেকে ১২টার মধ্যে নূর হোসেনেকে বেনাপোল বন্দরে হস্তান্তর করা হতে পারে।

এর আগে গত মঙ্গলবার গভীর রাতে অনুপ চেটিয়াকে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেয়া হয়। তবে বিষয়টি বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রথমে স্বীকার করা না হলেও ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়ে যাওয়ার পর সত্যতা স্বীকার করা হয়।

এ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানান, অনুপ চেটিয়ার সাজার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় তাকে ভারতের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

তবে নূর হোসেন যখন পশ্চিমবঙ্গে পালিয়ে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন তার পর থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল, অনুপ চেটিয়ার বিনিময়ে তাকে ফেরত এনে বিচারের আওতায় আনা হবে। ভারত-বাংলাদেশ বন্দিবিনিময় চুক্তি না থাকায় সে প্রক্রিয়াতে এগুনো সম্ভব ছিল না। কিন্তু পরবর্তীতে বন্দি প্রত্যর্পণ চুক্তি হলেও নানা জটিলতায় তাকে ফেরত আনা সম্ভব হয়নি।

ওদিকে স্থানীয় আদালতে নূর হোসেনের বিচারপ্রক্রিয়া চলছিল। সর্বশেষ পশ্চিমবঙ্গের একটি আদালত ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে তাকে ফেরত দেয়ার নির্দেশ দেন।

তবে অনুপ চেটিয়াকে ফেরত দেয়ায় নূর হোসেনকে ফেরতের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হলো বলে অনেকে মনে করছেন।

print