ঢাকা: দেশে দলীয়ভাবে প্রথম বারের মতো অনুষ্ঠিত স্থানীয় নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করে কি না এবার একটু দেখতে চাই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও সংসদীয় বোর্ডের জরুরি সভায় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, সব দলের জন্য পৌরসভা নির্বাচন একটা সুযোগ। তারা যদি নিজ নিজ প্রতীকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে, তাহলে তারা দল গঠন করার ভালো একটা সুযোগ পাবে।

দলীয় সভানেত্রীর সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলী, উপদেষ্টা পরিষদ, সম্পাদকমণ্ডলীসহ শীর্ষস্থানীয় নেতারা উপস্থিত রয়েছেন। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী যাচাইবাছাই নিয়ে বৈঠকটি চলছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০১৪ সালের নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করে নাই, বয়কট করেছে। শুধু বয়কট করে নাই, বয়কট করার নামে মানুষ হত্যা করেছে। গাড়ি ভাঙচুর করা থেকে শুরু করে নির্বাচন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত ৫০০ স্কুল-কলেজে হামলা করেছে। রীতিমতো সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়েছে। আল্লাহর রহমতে জনগণ আমাদের সঙ্গে ছিল বলে তারা প্রতিহত করতে পারে নাই। এমনকি ৪০ থেকে ৪৫ শতাংশ ভোট পড়েছে। যেটা, উন্নত দেশে যে পরিমাণ ভোট পড়ে, তার চেয়ে বেশি পড়েছে।’

বিএনপির উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তাদের মধ্যে একটা দ্বৈততা আছে। একমুখে বলে আওয়ামী লীগের অধীনের নির্বাচন করবে না। আবার অপরদিকে দেখা যায়, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সব সময় অংশগ্রহণ করছে, দলীয় প্রার্থী দিচ্ছে বা সমর্থন দিচ্ছে। বিএনপি নির্বাচনে ঠিকই অংশগ্রহণ করছে, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে।

শুধু জাতীয় ও উপনির্বাচন হলে সেখানে বিরত থাকছে। আর বাইরে বলে বেড়াচ্ছে নির্বাচনে অংশ নেয়নি, নির্বাচন ঠিক হচ্ছে না। এবার তো দলীয় ভিত্তিতে হচ্ছে। এবার একটু দেখতে চাই। নিজ নিজ মার্কা নিয়ে এখন নির্বাচনটা করে কি করে না, সেটা দেখার বিষয় আছে। নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে আর তারা বলতে পারবে না নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব না। কারণ দলীয় প্রতীক নিয়ে তারা তো করল। আর না করলে এটা তাদের দলের জন্য ক্ষতি। এখন তারা কোন পথে যাবে, এটা তাদের বিষয়। এটা আমাদের বিষয় না।’

print