স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুর সদর উপজেলার ৪৫ নং ওদনকাঠী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মিতালী খানম কে মারধর করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষার্থীর মা ও তার নানীর বিরুদ্ধে। আহত শিক্ষককে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জানাগেছে শনিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেনীর ছাত্রী জেমির মা ফারজানা আক্তার শিমু ও তার নানী মাহমুদা বেগম  বিদ্যালয়ে এসে শিক্ষকদের কাছে জানতে চান তার মেয়ে কেন প্রথম,দ্বিতীয় বা তৃতীয় হলনা। এক পর্যায়ে সে (ছাত্রীর মা) শিক্ষকদের সাথে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েএবং জেমির মার্কশীট ছিড়ে ফেলে।
বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সরোয়ার হোসেন জানান, দুপুরে বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণীর দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী জেমী খানম পরীক্ষায় প্রথম, দ্বিতীয় বা তৃতীয় না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে জেমীর মা ফারজানা আক্তার শিমু ও নানী মাহমুদা বেগম দুজনে মিলে শিক্ষিকা মিতালী খানম কে কিল ঘুষি দেয় এবং দেয়ালের সাথে আঘাত করে।
পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতির কাছ থেকে মৌখিক অভিযোগ পাওয়ার ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

print