হাসিবুল হাসান : গত শনিবার পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মো: খায়রুল আলম সেখ ফেসবুকে দেখতে পান কাউখালীর উপজেলার দরিয়ারপাড়-শর্ষিনা সড়কের কচুয়াকাঠি গ্রামের সড়কে অসহায় ফুলবানুর একমাত্র ছাগলটি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছে। আর অসহায় বিধবা ছাগল হারিয়ে রাস্তার পাশে বসে গলা বিছিন্ন রক্তাক্ত ছাগলটির নিয়ে কাঁদছে।
এই বিষয়টি জেলা প্রশাসক মো: খায়রুল আলম সেখের নজরে আসলে সাথে সাথেই ফেসবুকে সেই অসহায় বিধবাকে সমবেদনা জানিয়ে জানান “শেষ সম্বল(ছাগল) হারানো ঐ দুস্থ্য মাকে সম্ভব হলে আমার নিকট নিয়ে আসবেন অথবা একটি আবেদন নিয়ে আসবেন আমি তাঁকে একটি নয় দুটি ছাগল কিনে দিব। প্রয়োজনে আমি নিজে গিয়ে দিয়ে আসব। ঐ মটর সাইকেল চালককে চিহ্নিত করা চেষ্টা করুন। সে যদি ক্ষতিপূরণ দিতে টায় তাকে সুযোগ দেওয়া যেতে পারে , অন্যথায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”
এরপর গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসক মো: খায়রুল আলম সেখ নিজে কাউখালী উপজেলার কচুয়াকাঠি গ্রামের হত দরিদ্র বিধবা গোলবানু বেগমের বাড়িতে গিয়ে দুইটি ছাগল, শাড়ি, কম্বল ও বিধবার প্রতিবন্ধী ছেলের জন্য লুঙ্গি প্রদান করেনে। এ সময় বিধবা গোলবানু আনন্দে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তখন সেখানে আরেক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা ঘটে।
এ সময় কাউখালী উপজেলা চেয়ারম্যান এস.এম আহসান কবির, ইউএনও লাবনী চাকমা, সমাজ সেবক আবদুল লতিফ খসরু ও স্থানীয় ইউপি সদস্য নেপাল চন্দ্র দে সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

print