পিরোজপুর প্রতিনিধি : “সবার জন্য চলচিত্র, সবার জন্য সাংস্কৃতি” এই স্লোগানকে সামনে রেখে পিরোজপুরে বাংলাদেশ চলচিত্র উৎসব ২০১৭ এর উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর আয়োজনে ৬ অক্টোবর থেকে ২১ অক্টোব পর্যন্ত এ চলচিত্র উৎসবের উদ্ভোধন করেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এস এম সোহরাব হোসেন। অনুষ্ঠানে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আহসান গাজীর সভাপতিত্বে এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, জেলা উদীচী সভাপতি এ্যাডভোকেট এম এ মান্নান, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট মাহমুদ হোসেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও সিনিয়র সাংবাদিক গৌতম চৌধুরী, জেলা ক্রিড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা নকীব, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কালচারাল অফিসার জান্নাতুল ফেরদৌস, শংঙ্করপাশা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম মিরন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, নাট্যকার রেজা করিম।
অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এস এম সোহরাব হোসেন বলেন, চলচিত্র মুক্তিযুদ্ধে অগ্রনী ভুমিকা পালন করেছে। রবীন্দ্রনাথ ও নজরুল কবিতার মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ের ভুমিকা ছিলো অভাবনীয়। বর্তমান যুবসসমাজ মাদকে ডুবে ধংষ হচ্ছে। ভুল করেও আপনারা এটি দেখতে যাবেন না। যে যার অবস্থান থেকে যদি আপনার সমাজকে ভালোর দিকে টিকিয়ে রাখতে পারেন তবে প্রত্যেকটি সেক্টর থেকে রক্ষা করা সম্ভব।
অনুষ্ঠানে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক জিয়াউল আহসান গাজী বলেন, স্বাধীনতা মানে সংস্কৃতি। ১৯৭৪ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সে দিন জাতির পিতা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠা না করলে আজকের দিনে সাংস্কৃতি অঙ্গন এতো বিকাশিত হতো না। বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উদ্দ্যোগ রয়েছে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে। জননেত্রী শেখ হাসিনা অনুভব করেছেন যে বর্তমান যুগের ছেলে মেয়েরা সাংস্কৃতিক অঙ্গনে থাকলে মাদক থেকে দুরে থাকবে। তাইতো তিনি শিল্পাঅঙ্গনকে সমৃদ্ধ করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
আলোচনা সভা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আগামীকাল থেকে চলচিত্র উৎসব উপলক্ষে জেলা টাউন ক্লাব স্বাধীনতা মঞ্চে বিভিন্ন চলচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।

print