স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরে এক শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে সৎমায়ের বিরুদ্ধে। রবিবার দুপুরে শহরের মধ্যরাস্তা এলাকার একটি পুকুর থেকে দেড় বছরের শিশু ঝুমুর আক্তারের লাশ উদ্ধার করা হয় বলে জানান পিরোজপুর সদর থানার ওসি মো: মাসুমুর রহমান বিশ^াস। ঝুমুর আক্তার শহরের মধ্যরাস্তা এলাকার চটপটি বিক্রেতা জাহিদুল ইসলাম জাহিদের কন্যা।
এ ঘটনায় নিহত ঝুমুরের সৎ মা জাহিদুলের বড় স্ত্রী মনি বেগমকে আটক করেছে পুলিশ।
পিরোজপুর সদর থানার ওসি মো: মাসুমুর রহমান বিশ^াস, গত ১ ডিসেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যার পর থেকে ঝুমুর বাসা থেকে নিখোঁজ ছিল। এ ঘটনায় শনিবার রাতে ঝুমুরের মা মুক্তা বেগম বাদী হয়ে পিরোজপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করে। এরপর আজ রোববার দুপুরে স্থানীয় লোকজন জাহিদের বাসার কাছে একটি পুকুরে ঝুমুরের লাশ ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় এবং পুলিশ ঘটনাস্থল তেকে লাশটি উদ্ধার করে। এ সময় পুলিশ জাহিদ ও জাহিদের ২ স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায় ও লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরন করা হয়।
ওসি মাসুমুর রহমান বিশ্বাস আরো জানান, জাহিদের প্রথম পক্ষের স্ত্রী মনি বেগম কে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায় ঝুমুরকে শ^াসরোধ করে হত্যার কথা স্বীকার করে। শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝুমুর সৎমা মনি বেগমের ঘরে টিভি দেখছিল। এ সময় মনি বেগম ঝুমুরকে শ^াস রোধকরে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেয় ।

print