স্টাফ রিপোর্টার: ইন্দুরকানীতে স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা কৃষকের পুরুষাঙ্গ কর্তন। রোববার রাতে উপজেলার পত্তাশী এলাকায় স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীর ঘরে ঢুকে পার্শ্ববর্তী গ্রামের মজিদ তালুকদারের ছেলে সুফিয়ান (৫০) শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। তখন ওই নারী নিজের সম্ভ্রম বাচাঁতে কৌশলে ব্লেড দিয়ে সুফিয়ানের পুরুষাঙ্গে পোচ দিয়ে অধিকাংশ কেটে ফেলে। পরে ওই নারীর চিৎকার দিলে সুফিয়ান রক্তাক্ত অবস্থায় পালিয়ে স্থানীয় চিকিৎসকদের কাছে যায়। চিকিৎসকরা তার পুরুষাঙ্গে ৮টি সেলাই দিলেও রক্ত ঝড়া বন্ধ হয়নি। পরে সোমবার সকালে গুরুতর অসুস্থ্য অবস্থায় পিরোজপুর সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।
স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী জানান, আমি ঘরে একা থাকায় এলাকার বখাটে কিছুলোক আমাকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তাই রাতে সুফিয়ান জোর করে আমার ইজ্জত নষ্ট করতে চাইলে আমি তার পুরুষাঙ্গ কেটে দেই।
অপরদিকে সুফিয়ানের স্ত্রী জানান, পান খাওয়ার কথা বলে আমার স্বামীকে ডেকে নিয়ে ওই নারী তার পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে।

print