স্টাফ রিপোর্টার :দক্ষিন বাংলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ পিরোজপুর সরকারী সোহরাওয়ার্দী কলেজ। এ কলেজে প্রায় ১০ হাজার শিক্ষার্থী পড়াশুনা করে। বিগত কয়ের বছরে কলেজে উন্ননের অনেক ছোঁয়া লাগলেও কলেজের প্রশাসনিক ভবনের পেছনে ও নতুন তৈরী একাডেমিক ভবন ৫ এর সামনে রয়েছে নিচু জলাবদ্ধ ভুমি এবং কলেজের উত্তর পাশে কচুরিপানা ভর্তি বদ্ধ জলাশয় যেন পাল্টে দিচ্চে কলেজের পরিবেশ। এ কচুরিপানা ভর্তি বদ্ধ জলাশয় নিচু জলাবদ্ধ ভুমির কারনে যেমন কলেজের পরিবেশের ভারসম্য বিনষ্ট হচ্চে তেমনি শিক্ষার্থীদের চলাচলে চলাচলে নানা সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। বদ্ধ জলাশয় নিচু জলাবদ্ধ ভুমিতে প্রায় সারা বছরই পানির নিচে তলিয়ে থাকে ফলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা চলাচল করতে বিঘ্ন ঘটে এবং মশার উৎপত্তি ব্যাপক ভাবে দেখা যায়। কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীদের দাবী যে কোন উপায়ে কলেজের প্রশাসনিক ভবনের পেছনের নিচু জলাবদ্ধ ভুমি এবং কলেজের উত্তর পাশে কচুরিপানায় ভর্তি বদ্ধ জলাশয় সংস্কার করে কলেজের সৌন্দর্য রক্ষা করা হোক।
এ ব্যপারে সরকারী সোহরাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো: দেলোয়ার হোসেন জানান, কলেজের প্রশাসনিক ভবনের পেছনে নিচু জলাবদ্ধ ভুমি এবং কলেজের উত্তর পাশে কচুরিপানায় ভর্তি বদ্ধ জলাশয় সংস্কারের জন্য আমরা আমাদের উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানিয়েছি অনুমতি পেলেই এ সমস্যার সমাধান করা হবে।
সরকারী সোহরাওয়ার্দী কলেজের ভিপি এস এম বায়েজিদ হোসেন জানান, সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজের দক্ষিণ বাংলার একটি ঐতিহ্যবাহী কলেজ। আওয়ামী সরকারের শাসনামলে আমরা এ কলেজে অনেক উন্নয়নের ছোঁয়া লাগিয়েছি কিন্ত প্রশাসনিক ভবনের পেছনে নিচু জলাবদ্ধ ভুমি এবং কলেজের উত্তর পাশে কচুরিপানায় ভর্তি বদ্ধ জলাশয় এর কারনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের অনেক সমস্যা হয়। এর আগেও আমরা বার বার এ সমস্যা সমাধানের জন্য কলেজ কতৃপক্ষকে জানিয়েছি কিন্ত কোন সমাধান পাইনি।

print