মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার মিরুখালী গ্রামে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ঘরের সামনে ঘর তুলে জমি দখলের চেষ্টা চালিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করার পরও প্রতিপক্ষরা ওই বিরোধীয় জমিতে কাজ করে যাচ্ছে। এতে অপ্রীতিকর ঘটনার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। রোববার দুপুরে সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়।
স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার মিরুখালী গ্রামের মৃত আ. করিম হাওলাদারের ছেলে দেলোয়ার হোসেন এর সাথে প্রতিবেশী মৃত ওসমান গণির ছেলে কাদের হাওলাদারের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এক মাস পূর্বে দেলোয়ারের বাবা মারা যাওয়ার পর প্রতিপক্ষরা দেলোয়ারের জমি দখলের জন্য পায়তারা শুরু করে। এ ধারাবাহিকতায় শুক্রবার দুপুরে প্রতিপক্ষ কাদের হাওলাদার, জালাল, আলমগীর, মহিবুল্লাহ তাদের দলীয় ১০/১২ জন লোক নিয়ে দেলোয়ারের বসত ঘরের সামনে একটি ঘরে তুলে মাটি কেটে ভরাট করে দখলের চেষ্টা চালায়। এসময় কাদের হাওলাদার গ্রুপ দেলোয়ারের জমির বিভিন্ন গাছ পালা কেটে ফেলে। সীমানার বেড়া উপড়ে ফেলে। মুরগীর ফার্ম ও একটি দোকান ঘর সীমানা দিয়ে দখলের চেষ্টা চালায়। দেলোয়ার হোসেন কোনো উপায় না পেয়ে স্থানীয় থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উভয় পক্ষকে কাজ না করতে নির্দেশ দেন। পরবর্তীতে উভয় পক্ষের বিরোধ নিস্পত্তির জন্য সালিশ বরণ করে দেন। কিন্তু কাদের হাওলাদার গ্রুপ থানা ও সালিশ অমান্য করে উক্ত জমিতে কাজ করে যাচ্ছেন।
মঠবাড়িয়া থানার এএসআই আনোয়ার হোসেন লিখত অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ পাঠিয়ে কাজ বন্ধ রেখে উভয় পক্ষকে থানায় ডেকে সালিশ বরণ করে দেয়া হয়েছে। সালিশ বৈঠক ছাড়া পুনরায় ওই জমিতে কাজ করা অন্যায়।

print