স্টাফ রিপোর্টার : কিশোরগঞ্জে চাকরীরত অবস্থায় ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পিরোজপুর ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো: সেতাফুল ইসলাম কে গ্রেপ্তার করেছে দুদক। আজ বুধবার রাতে পিরোজপুর জেলা সার্কিট হাউজের সামনে থেকে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো: সেতাফুল ইসলাম গ্রেপ্তার করা হয় । কিশোরগঞ্জ ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তার দায়িত্ব থাকাকালীন সময়ে ভুয়া এলএ কেসের মাধ্যেমে ৫ কোটি টাকা আত্মসাত করার অভিযোগের মামলায় দুদক তাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত মো: সেতাফুল ইসলাম ঢাকার ডেমরা থানার পূর্ব ডগাইর এলাকার মো: দেদার আলী মোল্লার পুত্র।
দুর্নীতি দমন কমিশন বরিশাল কার্যালয় সহকারী পরিচালক মো: সিফাত উদ্দিন জানান, কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলায় নতুন সেনানিবাস স্থাপন, পানি উন্নয়ন বোর্ড, সড়ক ও জনপথ বিভাগের বিভিন্ন প্রকল্পের জমি অধিগ্রহণের জন্য প্রায় ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ আসে। ২০১৭ সালের ৫ ডিসেম্বর জেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত পাঁচ কোটি টাকার একটি চেক ৬ ডিসেম্বর ভূমি অধিগ্রহণ শাখার কর্মচারীদের বেতন-ভাতা শিরোনামে চলতি হিসাবে জমা হয়। ওই দিনই একটি চেকের মাধ্যমে ২ কোটি টাকা এবং ৭ ডিসেম্বর একটি চেকের মাধ্যমে ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা মো: সেতাফুল ইসলাম উত্তোলন করেন। এ ছাড়া আরও ৬ লাখ টাকা তপন ইন্ডাস্ট্রিজের নামে একটি হিসেবে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করেন তিনি। পরে মো. সেতাফুল ইসলাম সরকারি হিসাব নম্বরে ভূমি অধিগ্রহণের ৫ কোটি টাকা জমা করেন। পরে নিজেই তা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন।
দুর্নীতি দমন কমিশন বরিশাল কার্যালয় সহকারী পরিচালক মো: সিফাত উদ্দিন আরো জানান এ ঘটনায় কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলায় তাকে আজ পিরোজপুর জেলা সার্কিট হাউজের সামনে থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো: সেতাফুল ইসলাম কে পিরোজপুর সদর থানায় সোপর্দ করা হয়।

print