ইন্দুরকানী প্রতিনিধি: পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে ১৩ দিন পর নিখোঁজ ইটভাটার শ্রমিকের লাশ ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বাগেরহাট জেলার শরণখোলা থানা পুলিশ লাশটি বলেশ্বর নদীর বগী এলাকা থেকে উদ্ধার করে। মঙ্গলবার শরণখোলা থানা পুলিশ একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠায়। খবর পেয়ে নিখোজের লাশটি দেখে পরিচয় নিশ্চিত করেছেন ইন্দুরকানী উপজেলার টগরা গ্রামের নিখোঁজ মাসুমের স্বজনেরা।
জানা যায়, গত ২৫ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার কালাইয়া গ্রামে কচাঁ নদীর তীরে অবস্থিত এস.বি.এম ইটভাটার শ্রমিক টগড়া গ্রামের মোঃ নুরুল ইসলামের ছেলে মাসুম (২৫) নিখোঁজ হয়। পরে অনেক খোজাখুজির পর তাকে না পেয়ে তার বড় ভাই জুলু হোসেন ২৭ জানুয়ারী ইন্দুরকানী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শরণখোলা থানার এস আই দেবব্রত হালাদার জানান, লাশটি উদ্ধার করে একটি ইউডি মামলা করে মঙ্গলবার বাগেরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
ইন্দুরকানী থানার ওসি মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, গত ২৫ জানুয়ারী ইন্দুরকানী থানার কালাইয়া গ্রামের কচাঁ নদীর তীরবর্তী এস.বি.এম ইটভাটার শ্রমিক টগড়া গ্রামের মোঃ নুরুল ইসলামের ছেলে মাসুম (২৫) নিখোঁজ হয়। এব্যাপারে তার বড় ভাই জুলু হোসেন ২৭ জানুয়ারী ইন্দুরকানী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন। নিখোঁজের লাশ শরণখোলা থানা পুলিশ সোমবার উদ্ধার করেছে।

print