রফিকুল ইসলাম: পিরোজপুরের স্বরূপকাঠী উপজেলায় পানিতে পড়া মোঃ শাওন নামে ৫ বছরের এক শিশু প্রানে বেচে ফিরেছে তার মা,বাবার কোলে। গতকাল শুক্রবার আনুমানিক বিকাল ৫-৩০ মিঃ এর সময় ঘরের সামনে মা,বাবার সাথে বাচ্চাটি খেলতেছিলো তখন খেলতে খেলতে মা,বাবার চোখকে ফাকি দিয়ে ঘরের সামনে পুকুরে পড়ে যায় বাচ্চাটি, বাচ্চাকে না দেখতে পেয়ে তার মা,বাবা চিৎকার দিয়ে খুজতে থাকে এ সময় পুকুরের ভিতরে ভুতভুত শব্দ দেখে বাচ্চাটির বাবা বুঝতে পারেন এবং পুকুরে ঝাপ দিয়ে এক,বারেই তাকে উদ্ধার করতে সক্ষম হন বলে জানান। উদ্ধার করে সাথে সাথে প্রতিবেশীদের সহায়তায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার মোঃ আসাদুজ্জামান বাচ্চাটিকে জরুরী ভিত্তিতে পাস্বভর্তি এপেক্স হেল্থ ক্লিনিকে নিয়ে আসেন এবং প্রাণপন চেষ্টা চালান। তখন বাচ্চাটির সংগে অনেক শুভাকাঙ্খীদেরও দেখা যায়। তৎখনাৎ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃআসাদুজ্জামান নিজে ইন্ড্রোট্রাকিয়াল টিউব দিয়ে কৃতিম স্বাস প্রশাস দেন এবং সাকশন দিতে থাকেন তখনই বাচ্চাটির স্বাভাবিক স্বাস প্রশাস ফিরে আসে এবং কান্না করতে থাকে এসময় শিশুটির এমন খবর পেয়ে ছুটে আসেন বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজের ডাঃ আশিক দত্ত, এবং এপেক্স ক্লিনিকে থাকা ডাঃ মোঃ মাসুমবিল্লাহ সহ অনেকেই। ওটিতে কর্মরত মোঃ মিজানুর রহমান ও মোঃ রফিকুল ইসলাম সহ সবাইর আপ্রাণ চেষ্টায় বাচ্চাটিকে প্রাথমিক ভাবে চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে প্রেরন করা হয়। পরে ডাক্তার আসাদুজ্জামান জানান,বাচ্চাটি জরুরি বিভাগে আসার সাথে সাথে দেখতে পাই তার কোনো রেশপ্রিসন নাই অর্থাৎ কোনো স্বাস-প্রশাস ছিলোনা শুধু একটু হার্টবিট স্বচল পাওয়া গেছে। আর সংঙ্গে সংঙ্গে বুজতে পেরেই এ ব্যাবস্থা নেওয়া হয়। আল্লাহ সহায় ছিল আর সকলার ঐকান্তিক প্রচেস্টায় বাচ্চাটি বেচে গেছে। এ ব্যাপারে বাচ্চাটির বাবা মো.শাহীন ফকির শনিবার বরিশাল থেকে ফিরে সাক্ষাতে বলেন একজন ডাক্তার সব রোগীকে এভাবে মন প্রাণ দিয়ে চিকিৎসা সেবা দিলে অনেক সময় সঙ্কটাপন্ন রোগীর জীবনও ফিরে পেতে পারে। তার দৃস্টান্ত আজ আমার ছেলে। তিনি আবেগভরা কন্ঠে বলেন ডাক্তার সহ যারা আমার ছেলের জীবন ফিরে পেতে সাহায্য করেছে তাদের ঋন শোধ করার না তাদের কারনেই আল্লাহর অসীম রহমতে আজ আমার ছেলে আমাদের মাঝে ফিরে পেয়েছি আমি সবার জন্য প্রাণভরে দোয়া করবো। মো.শাওন (৫) বছর স্বরূপকাঠী পৌরসভার ৩ নং ওয়াডের মো.শাহীন ফকিরের ছেলে তিনি পেশায় একজন কনফেকশনারীর দোকানদার।

print