স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরে জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকি প্রভাব এবং অভিযোজন বিষয়ক এক কর্মশালা পিরোজপুরের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার কোস্টাল ক্লাইমেন্ট রেজিলিয়েন্ট ইনফ্রোস্ট্রাক্চার প্রজেষ্ট এর আওতায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর আয়োজনে দিনব্যাপী এ কর্মশালা উদ্বোধন করেন পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: মোস্তাফিজুর রহমান। কর্মশালায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এস এম সোহরাব হোসেন, সরকারি সোহাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো: দেলোয়ার হোসেন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র মিনারা বেগম, পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সিনিয়র সাংবাদিক গৌতম চৌধুরী, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ বিষয়ক কর্মকর্তা অরবিন্দু রায়, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো: মোশাররফ হোসেন, জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো: মহাসীন হোসেন তালুকদার সহ জেলা প্রশাসনের ও জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন এনজিও এর প্রতিনিধিবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ। কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিরোজপুরের এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায় এবং কর্মশালা পরিচালনা করেন পিরোজপুরের এলজিইডি’র উপ-সহকারি প্রকৌশলী নাসিমুল হাসান। কর্মশালায় বিশেষজ্ঞের বক্তব্য রাখেন জলবায়ু পরিবর্তন ও অভিযোজন বিশেষজ্ঞ ইন্টারন্যশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেইঞ্জে এর আরবান ক্লাইমেট চেইঞ্জ কো-অর্ডিনেটর সরদার শফিকুল আলম। তিনি দিনব্যাপী এ কর্মশালায় একটি ট্রেনিং হ্যান্ড আউট উপস্থাপন করে এবং কর্মশালায় অংশ গ্রহণকারীদের মধ্যে বিতরণ করেন। জেলার সবকটি উপজেলায় এই কর্মশালার আয়োজন করা হচ্ছে। আলোচকরা বলেন, বর্তমান সরকার জলবায়ুর ক্ষতিকর দিকগুলো মোকাবেলায় যথেষ্ট আন্তরিক রয়েছেন এবং এলজিইডি এর প্রতিটি উন্নয়ন মূলক প্রকল্প প্রনয়ন এবং বাস্তবায়নে জলবায়ু পরিবর্তন সহনীয় বিষয়গুলো অন্তভূক্ত রয়েছে। এ জেলায় ইতিমধ্যে ৮ কোটি টাকা ব্যায়ে ১০০ টি ঘূর্নিঝড় সহনীয় গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে এবং ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র নির্মিত হয়েছে এবং নির্মান করা হচ্ছে।

print