স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুর জেলায় চলতি অর্থ বছরে ৯০ হাজার ৪শত ৮৮টি বিভিন্ন জাতের চারা গাছ রোপণ করা হবে। দেশের ৫ উপকূলীয় জেলায় বনায়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এ জেলার ৫ উপজেলায় ৪৮ হাজার ৪ শত ৮৮টি চারা গাছ রোপণ করার প্রাথমিক প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।
এছাড়া দেশব্যাপী ৩০ লক্ষ শহীদের স্মরণে ৩০ লক্ষ চারা গাছ রোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে এ জেলার ৭ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৪২ হাজার চারা গাছ রোপণ করা হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাছাইয়ের কাজ আজ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে।
পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সামাজিক বন বিভাগের পিরেজপুরের বন সংরক্ষক এর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে উপকূলীয় বনায়ন শীর্ষক প্রকল্পটি বাস্তবায়ন শুরু হয় ২০১৫-১৬ অর্থ বছর থেকে সে বছর পিরোজপুরে ৪৬ হাজার চারা রোপণ করা হয়। জেলার পিরোজপুর সদর, কাউখালী, ভান্ডারিয়া, মঠবাড়িয়া এবং ইন্দুরকানী উপজেলার বিভিন্ন সড়কের দুপাশে রোপণকৃত চারার মধ্যে ৩২ হাজার সুপারি ও ১৪ হাজার শোভা বর্ধনকারী বৃক্ষের চারা রয়েছে। এর মধ্যে কৃষ্ণচূড়া, রাধাচূড়া, ঝাউ, কামিনী সহ বিভিন্ন প্রজাতির চারা রয়েছে।
২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ২২ হাজার ৪ শতটি নারিকেল, ১০ হাজার ৭৯৭ টি সুপারি, ৩ হাজার ২ শতটি তাল, ৬ হাজার শোভা বর্ধন চারা এবং ২৬ কি.মি. ষ্ট্রিপ বাগান এ ২৬ হাজার চারা রোপণ করা হয়। এ নিয়ে ৩ বছরে এ জেলায় চারা রোপণের সংখ্যা ২ লক্ষ ছাড়িয়ে যাবে। পিরোজপুরের সামাজিক বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক মোঃ মামুন সরদার জানান বৃক্ষ রোপনের ফলে বৃক্ষ আচ্ছাদায়নের পরিমান বৃদ্ধি পেয়েছে এবং জলবায়ূ পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে।

print