স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরে জেলায় সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর আওতায় সদ্য সমাপ্ত ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে প্রায় ৬২ হাজার ভাতাভোগীর মধ্যে ভাতার অর্থ বিতরণ করা হয়েছে। একই সময় এ খাতে সরকার ব্যয় করেছে প্রায় ৭৬ কোটি টাকা। সমাজসেবা অধিদপ্তরের পিরোজপুরের উপ-পরিচালক মো. শহিদুল ইসলাম জানান, এ জেলায় প্রতিমাসে ৫শ’ টাকা করে ৩৩ হাজার ৮শ’ ৩৪ জন বয়স্ক ব্যক্তিকে বয়স্ক ভাতা প্রদান করা হয়েছে। এখাতে সরকার ব্যয় করেছে ২০ কোটি ৩০ লাখ ৪ হাজার টাকা। বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতা প্রদান করা হয়েছে ১৬ হাজার ৯শ’ ২১ জনকে। মাসিক ৫০০শ’ টাকা হারে এক বছরে ব্যয় হয়েছে ১০ কোটি ১৫ লাখ ২৬ হাজার টাকা। অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীভাতা দেয়া হয়েছে ৭ হাজার ৫শ’ ৯৯ জনকে। ৭শ’ টাকা করে বছরে ব্যয় ৬ কোটি ৩৮ লাখ ৩১ হাজার ৬শ’ টাকা। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি ভাতা ৪ স্তরে প্রদান করা হয়েছে ৬শ’ ৬০ জন প্রতিবন্ধীকে। প্রাথমিক স্তরে ৫শ’ মাধ্যমিকে ৬শ’, উচ্চ মাধ্যমিক ৭শ’ এবং উচ্চ স্তরে ১২শ’ টাকা করে প্রদান করায় গত অর্থ বছরে ব্যয় হয়েছে ৫৪ লাখ ২ হাজার ৪শ’ টাকা।
পিরোজপুর সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো. মতিউর রহমান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার প্রতি বছর ভাতাভোগীর সংখ্যা ১০ ভাগ হারে বৃদ্ধি করছে। জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৬ -২০০১ মেয়াদে ১৯৯৭-৯৮ অর্থ বছরে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সরকার ৪ লাখ বয়স্ক ব্যক্তিকে জনপ্রতি মাসিক ১০০ টাকা হারে বয়স্ক ভাতা প্রদানের মাধ্যমে দেশে প্রথম ভাতা প্রদান কার্যক্রম চালু করেন। বর্তমানে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর আওতায় বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী, হিজড়া, বেদেসহ অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর প্রায় ৬০ লাখ ব্যক্তিকে বিভিন্নভাতা প্রদান করা হচ্ছে। শুধুমাত্র ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে ৩ লাখ ৫০ হাজার বয়স্ক ভাতাভোগী, ১ লাখ ৫০ হাজার বিধবা, স্বামী নিগৃহীতা ভাতাভোগী, ৭৫ হাজার অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতাভোগী এবং ১০ হাজার প্রতিবন্ধী ভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে।
বয়স্ক ভাতাভোগীর সংখ্যা ২০ লাখ থেকে ৩৫ লাখ জনে এবং মাসিক ভাতার পরিমাণ ২শ’ ৫০ টাকা থেকে ৫শ’ টাকায় উন্নিত করা হয়েছে। বিধবা, স্বামী নিগৃহিতা ভাতাভোগীর সংখ্যা ৭ লাখ ৫০ হাজার থেকে ১২ লাখ ৬৫ হাজার জনে এবং ভাতার পরিমাণ ২শ’ ৫০ থেকে ৫শ’ টাকায় উন্নিত করা হয়েছে। এদিকে এ জেলায় বর্তমানে ২ হাজার ৭শ’ ৩৬ জন মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযোদ্ধার উত্তরাধিকারী মাসিক সম্মানিভাতা পাচ্ছেন।
প্রতিমাসে ১০ হাজার টাকা এবং ২ ঈদে ১০ হাজার করে ২টি উৎসবভাতা প্রদান করায় গত অর্থবছরে পিরোজপুরে ব্যয় হয়েছে ৩৮ কোটি ৩৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক জেলা কমান্ডার গৌতম নারায়ন রায় জানান, মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানি ভাতা ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার চালু করেন। এবং ২০০৯ সাল থেকে তিনি পর্যায়ক্রমে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানিভাতার হার ৯শ’ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ১০ হাজার টাকায় উন্নিত করেছেণ।

print