বর্তমানে ভারতের ২৯ রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে গরিব মুখ্যমন্ত্রী হলেন পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর সবচেয়ে ধনী অন্ধ্রপ্রদেশের চন্দ্রবাবু নাইডু।

ভারতের বেসরকারি গবেষণা সংস্থা অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মসের (এডিআর) তথ্য অনুযায়ী, এন চন্দ্রবাবু নাইডুর মোট সম্পত্তির পরিমাণ বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৭৭ কোটি টাকার সমপরিমাণ। মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি তেলেগু দেশম পার্টির সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন অবিভক্ত তেলেঙ্গানার এই নেতা।

ধনীদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন প্রেমা খান্ডু। ভারতীয় জনতা পার্টি শাসিত অরুণাচল প্রদেশ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী তিনি। তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১২৯ কোটি টাকা। তৃতীয় স্থানেই রয়েছেন পঞ্জাবের কংগ্রেস দলীয় মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দর সিং। তার সস্পত্তির পরিমাণ ৪৮ কোটি টাকার।

এই তালিকায় শেষের দিক থেকে প্রথম পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এডিআর’র তথ্য অনুযায়ী, তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৩০ লাখ টাকা। এই তালিকায় কিছুদিন আগে গরিব মুখ্যমন্ত্রীত্বের তকমা ছিল ত্রিপুরার বাম সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের। সম্প্রতি ত্রিপুরার নির্বাচনে বামফ্রন্ট ক্ষমতাচ্যুত হয় এবং ক্ষমতায় আসে বিজেপি সরকার। ত্রিপুরার প্রথম বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী হন বিপ্লব কুমার দেব।

এডিআর বলছে, মানিক সরকারের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ২২ লাখ টাকার। গরিব মুখ্যমন্ত্রীদের তালিকায় এতদিন পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরই ছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের মসনদে থাকা মেহবুবা মুফতি। বিজেপির সঙ্গে জোট করে ক্ষমতায় ছিলেন তিনি। বিজেপি জোট থেকে বেরিয়ে আসতেই ক্ষমতা হারান মেহবুবা। বর্তমানে তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৫৫ লাখ।

print