মঠবাড়িয়া সংবাদদাতা : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ৪৭তম স্কুল-মাদ্রাসা গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া ফুটবল খেলায় গুলিসাখালী জি.কে ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপর হামলার বিচারের দাবীতে মানববন্ধ কর্মসূচী পালন করেছে ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকরা। সোমবার সকালে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান সম্মুখ সড়কে গুলিসখালী ইউনিয়নের ৪টি মাধ্যমিক, ৩টি প্রাথমিক ও ১টি মাদ্রাসার প্রায় দুই সহস্রাধিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকরা ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন। মানবন্ধনে গুলিসাখালী জি.কে ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কমল চন্দ্র বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ইউ,পি চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলম ঝনো, মুক্তিযোদ্ধা মোশারেফ হোসেন, অধ্যক্ষ আঃ রহমান, শিক্ষক নেতা আলহাজ্ব আঃ লতিফ সিকদার, প্রধান শিক্ষক আনোয়ার মাহমুদ, সঞ্জয় কুমার হাওলাদার, মোঃ শাহ আলম, শিক্ষক মোঃ শাহ জালাল ও সমাজ সেবক স্বপন তালুকদার প্রমুখ।
উল্লেখ্য ৭ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুরে শহীদ মোস্তফা খেলার মাঠে ৪৭তম গ্রীষ্মকালীন স্কুল-মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ফুটবল খেলা শুরু হয়। খেলায় গুলিসাখালী জোন চ্যাম্পিয়ান দল গুলিসাখালী জি.কে.ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় একাদশ বনাম সাপলেজা জোন চ্যাম্পিয়ান সাপলেজা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় একাদশ অংশ গ্রহণ করে। এসময় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাপলেজা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক মোঃ জামাল হোসেন বহিরাগত লোকজন নিয়ে গুলিসাখালী জি.কে ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রদের উপর হামলা চালিয়ে ছয় শিক্ষার্থীকে আহত করে। এঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কমল চন্দ্র বিশ্বাস বাদী হয়ে ৮ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে সাপলেজা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক মোঃ জামাল হোসেনকে প্রধান করে এজাহার নামীয় ১১ জন ও অজ্ঞাতনামা ১৪০ জনকে আসামী করে মঠবাড়িয়ায় থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

print