স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের কদমতলাইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কদমতলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান  মোঃ হানিফ খান কে গ্রেপ্তর করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে পুলিশ কদমতলা বাজার থেকে আটক করা হয় বলে জানান পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনর্চাজ এস এম জিয়াউল হক।

তার বিরুদ্ধে স্থানীয় এক ইউপি সদস্যর পিতাকে চাঁদাদাবী করার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনর্চাজ এস এম জিয়াউল হক জানান,   ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন ও  ইউপি চেয়ারম্যান  হানিফ খান একটি মামলায় বুধবার পিরোজপুর আদালত থেকে জামিন নেয়।পরে সেই মামলার বাদী জাফর খানের কাছে শহরের আম্বিয়া হাসপাতাল এলাকায় বসে চাদা দাবী করে। এ ঘটনায় জাফর খান বাদী পিরোজপুর সদর থানায় হানিফ খানকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর সন্ধ্যার দিকে তাকে আটক করা হয়।

তবে হানিফ খানের পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে জানান, আওয়ামীলীগের পক্ষে কাজ করার জন্যই ষড়যন্ত্র করে তাকে মিথ্যা ঘটনায় মামলা দিয়ে হয়নারি করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ২২ অক্টোবর সোমবার কদমতলা ইউনিয়নের জেলেদের চাল দেয়াকে কেন্দ্র করে জেলেদের হামলায় আহত হয় কয়েক ইউপি সদস্য। এ ঘটনায় হামলায় আহত ইউপি সদস্য সোহেল খানের বাবা জাফর খান বাদী হয়ে ২৬ অক্টোবর ইউপি চেয়ারম্যান হানিফ খানকে প্রধান আসামী করে ২০ জনের নামে পিরোজপুর সদর থানায় একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় বুধবার মোঃ হানিফ খান আদালত থেকে জামিন পান।

print