ডালিম খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দায়। যাদের রক্ত শূণ্যতার সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য ডালিম বেশ উপকারি।ডালিম খেতে মজাদার হলেও তা বলতে গেলে কেউই নিয়মিত খান না। কিন্তু এই ফল বা তার রস দৈনিক পান করা হলে পাওয়া যায় অনেকগুলো স্বাস্থ্য উপকারিতা। এমনকি তা ওজন কমাতেও সহায়ক।

ডালিম যেমন মজাদার, তেমনি এর রয়েছে অ্যান্টিভাইরাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য। এতে আছে পলিফেনল, যা হৃৎপিণ্ডের ধমনীর স্বাস্থ্য ভালো রাখে, কোলেস্টেরল কম রাখে।ডালিমে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্ল্যাভনয়েডের আছে অ্যান্টিইনফ্লামেটরি বৈশিষ্ট্য, তা হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে পারে। ত্বক ও চুল ভালো রাখতেও কাজে আসে ডালিমের রস।

প্রতিদিন এক গ্লাস ডালিমের রস পান করলে পুরুষের শরীরে এক ধরণের অ্যান্টিজেন বাড়ে এবং দাঁতের ক্ষতি কম হয়। এসব স্বাস্থ্য সুবিধার পাশাপাশি ওজন কমাতেও কাজে আসে ডালিমের রস।

ডালিমের রস যেভাবে ওজন কমায়

চর্বি কমাতে

ডালিমে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, পলিফেনল এবং কনজুগেটেড লিনোলেনিক এসিড চর্বি কমাতে এবং মেটাবোলিজ বাড়াতে সাহায্য করে।
ক্ষুধাও কমায়

ডালিমের রস পান করলে ক্ষুধাও কম লাগে। চিনিতে ভরপুর কোমল পানীয়ের তুলনায় ডালিমের রস বেশি সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যকর।
কোমল পানীয়

কোমল পানীয়তে থাকা চিনিতে তো কোন পুষ্টি নেই, এছাড়া তা শরীরে ফ্যাট জমা করে। এদের বিকল্প হিসেবে ডালিমের রস অনেক উপকারী।
বাড়িতেই তৈরি করুন

ডালিমের রস পান করার ক্ষেত্রে সাবধান থাকুন। দোকান থেকে কিনে পান করলে নিশ্চিত হয়ে নিন এতে চিনি আছে কিনা। চিনিমুক্ত ডালিমের রস পান করুন। বাড়িতেও তা তৈরি করে নিতে পারেন।

print