সারাদেশে তীব্র শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আগামী সপ্তাহ থেকে দেশের উত্তরাঞ্চলে এ শৈত্যপ্রবাহের প্রকোপ বেশি হবে বলেও জানায় আবহাওয়া অধিদপ্তর।

যদিও এবার শীত একটু দেরিতে শুরু হয়েছে। তবুও শীতের তীব্রতা একটু বেশিই। এ বছরের দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ জানুয়ারির ২ তারিখে তেঁতুলিয়ায় ৪ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

এদিকে কুয়াশা কম থাকায় শীতের পাশাপাশি সূর্যের দেখা মেলায় শীতের অনুভূতি তেমনটি পাওয়া যাচ্ছে না।

তবে আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামী ১০ জানুয়ারির পর আরেকটি শৈত্যপ্রবাহ আসতে পারে। তখন ঘন কুয়াশার সম্ভাবনা রয়েছে, সে কারণে সারাদেশে তীব্র শীতের অনুভূত হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এমন পরিস্থিতিতে শিশুদের বাড়তি যত্নসহ বিশেষ নজর দেওয়ার কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন, এসময় শিশুদের কুসুম গরম পানি খেতে দেয়া ও ধুলাবালিতে খেলতে না দেয়া।

চিকিৎসকরা জানান, শীতের কারণে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়বে শিশুরা। সাধারণভাবে শিশু হাসপাতালে গড়ে ২৫০ থেকে ৩০০ রোগী ভর্তি হলেও এখন সেখানে প্রতিদিন সাড়ে ৫শ’র বেশি শিশু রোগী যাচ্ছে। এ কারণে শীতে শিশুদের ব্যাপারে বাড়তি নজর দেওয়ার কথা বলছেন তারা।

মো: ফেরদৌস রহমান (ডেস্ক এডিটর)

print