সারাদিনের কর্মশক্তির অন্যতম উৎস হতে পারে কিশমিশ। রক্তশূন্যতা রোধ, মুখের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে, হাড়ের সুস্থতায়, দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখাসহ নানা রোগের জন্য কিশমিশের বিকল্প নাই। তাই বাচ্চার সুস্বাস্থ্যের কথা ভেবে অনেকে হয়ত কিশমিশ তুলে দেন তাদের হাতে। সুস্বাদু এই খাবারটি পেয়ে বাচ্চাও সঙ্গে সঙ্গে টপাটপ করে মুখে ভরে দেয়। কিন্তু এ উপকারী ফলেও আছে কিছু ক্ষতিকর দিক।

এর মাধ্যমে বাচ্চার দাঁতের যে ক্ষতি হয় সেটা হয়ত অনেকের জানা নেই। ডেন্টিস্টরা শিশুদের কিশমিশ দেওয়ার আগে অন্তত দুইবার ভাবতে বলেছেন। মিররে এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পুষ্টিকর এবং বৃদ্ধিতে সহায়ক হওয়া সত্বেও অনেক স্বাস্থ্যকর খাবারও শিশুদের দাঁতের জন্য ভয়ানক ক্ষতির কারণ হতে পারে। এর ফলে শিশুদের পরবর্তী জীবনে মারাত্মক সমস্যা তৈরি করতে পারে।

ইংল্যান্ডের সলফোর্টের দন্ত চিকিৎসক সারা সাবিরের মতে, কিশমিশের পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা সবার জানা থাকলেও অনেকেই হয়ত জানেন না যে, এটি শিশুর দাঁতের চরম শত্রু। একটা ছোট কিশমিশের প্যাকেটে যতটা কিশমিশ থাকে তাতে হিসেব করে দেখা গিয়েছে অন্তত আট চামচ চিনি থাকে তাতে।

তিনি বলেন, ‘কিশমিশ তো বটেই বেশিরভাগ শুকনো খাবারেই শিশুর দাঁত নষ্ট করে ফেলে।

তাই যদিও কিসমিসের পুষ্টিগুণ রয়েছে তা সত্ত্বেও শিশুদের দাঁত সুস্থ রাখতে কিশমিশ পরিহার করার পরামর্শ ওই দন্ত চিকিৎসকের।

মো: ফেরদৌস রহমান (ডেস্ক এডিটর)

print