বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০২৪, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
কোটা আন্দোলনকারীদের হামলায় ছাত্রলীগের নেতা সাবাত আহত পিরোজপুরে রূপালী ব্যাংকের গ্রাহক সচেতনতা সপ্তাহ পালন আওয়ামীলীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী (প্লাটিনাম জয়ন্তী) উপলক্ষে যুবলীগের আয়োজনে বৃক্ষ রোপন ও খাদ্য বিতরণ ঘূর্ণিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের জন্য কমিউনিটি পরিচালিত খাদ্য সহায়তা কর্মসূচী’র উদ্বোধন তীব্র দাবদাহ থেকে রক্ষা পেতে পিরোজপুরে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতার বিশুদ্ধ পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ পিরোজপুরে মহান মে দিবস পালিত পিরোজপুরে কালবৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নগদ টাকার চেক ও টিন বিতরণ পিরোজপুরে রূপালী ব্যাংকের একাউন্ট ওপেনিং ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত বিলুপ্তপ্রায় শীতল পাটি শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে রূপালী ব্যাংকের প্রকাশ্যে কৃষি ঋন বিতরন পিরোজপুরে রূপালী ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

মঠবাড়িয়ায় বিয়ের আসর থেকে পলাতক আসামী বর গ্রেপ্তার

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বিয়ের আসর থেকে বিয়ের বর ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী বাবু তালুকদার ওরফে রাসেল কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে গ্রেপ্তার বাবু তালুকদার ওরফে রাসেল কে আদাতলে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান মঠবাড়িয়া থানার ওসি মুহা: নুরুল ইসলাম বাদল।
গ্রেপ্তারকৃত বাবু তালুকদার ওরফে রাসেল (৩৫) জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার আমরবুনিয়া গ্রামের আব্দুল খালেক তালুকদারের পুত্র।
মঠবাড়িয়া থানার এস আই কামরুল ইসলাম জানান, ২০১২ সালে সিলেটের একটি মামলায় গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি হয় বাবু তালুকদার ওরফে রাসেলের বিরুদ্ধে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টার দিকে পৌর শহরের বহেরাতলা এলাকা থেকে তাকে আটক করে থানা হাজতে রাখেন। পরে স্বজনরা স্থানীয় চেয়ারম্যানের সহযোগিতা নিয়ে চালাকি করে রাসেলের নাম বাবু দেখিয়ে থানা পুলিশকে ভুল তথ্য দিয়ে শুক্রবার রাতে ছাড়িয়ে নেয়। বিষয়টি পুলিশ যাচাই করে বুঝতে পারেন মো: বাবু তালুকদারের নামই রাসেল। পরে তাকে শুক্রবার বিকেল উপজেলার বড়শৌলা গ্রামের বিয়ের আসর থেকে ফের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
এস আই কামরুল ইসলাম আরো জানান, ওই ব্যক্তিকে রাসেল নামে গ্রেপ্তার করা হয়। কিন্তু ধানীসাফা ইউপি চেয়ারম্যান প্রত্যয়ন দিয়েছেন ওই ব্যাক্তি বাবু। নামে মিল না থাকায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
তুষখালী ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান হাওলাদার জানান, তার ভাগিনা রাসেল সম্প্রতি বিদেশ থেকে আসে। শুক্রবার তার বিয়ের দিন ধার্য থাকায় আমি মানবিক কারনে ছেড়ে দেয়ার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু পুলিশ আমাকে জানায় তার (রাসেল) বিরুদ্ধ ওয়ারেন্ট আছে। পরে জানতে পারি ধানীসাফা ইউপি চেয়ারম্যান প্রত্যয়ন দেয়ায় আমার ভাগিনাকে ছেড়ে দেয়া হয়।
ধানীসাফা ইউপি চেয়ারম্যান মো: হারুন তালুকদার প্রত্যয়ন দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছে এবং বলেন এ ব্যক্তির দুটি নাম তা তার জানা ছিলো না।
মঠবাড়িয়া থানার ওসি মুহা নুরুল ইসলাম বাদল জানান, চেয়ারম্যানের প্রত্যায়নের কারনে নামের বিভ্রাট হওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছিলো। তবে আসামী পুলিশের নজরদারীতে ছিলো এবং পরে যাচাই করে করেন তাকেই শুক্রবার বিকেলে ফের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত রাসেলকে আজ শনিবার দুপুরে মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

 

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017 gramersamaj.com
Design & Developed BY NCB IT